ইলোরা ব্রুনহিল্ডা

কবি

আমাকে দাফন কোরো না

যদি মরি গরাদের চৌদ্দ
শিকের ভেতর কিংবা বুটের আঘাতে, 
আমাকে তোমরা দাফন কোরো না
আমার মৃতদেহ নিয়ে রাজপথ আগলাও 
বন্ধ করে দাও রাজার রসদ সংগ্রহ
দাফন কোরো না। 

যদি মরি পুলিশের গুলি খেয়ে
কিংবা লাঠির আঘাতে, 
আমাকে তোমরা দাফন কোরো না
আমার মৃতদেহ নিয়ে মিছিল করো 
সংসদের ওই সুবিশাল চত্ত্বরে
দাফন কোরো না।

যদি মরি কালো বাহিনীর গুলি খেয়ে 
কিংবা রানির তর্জনী হেলনে,
আমাকে তোমরা দাফন কোরো না
আমার মৃতদেহ দিয়ে ভাঙো সুবিধাবাদী ক্যান্টনম্যান্টের ব্যূহ
গুড়িয়ে দাও নিপীড়কের সব আস্তানা
দাফন কোরো না। 

রাষ্ট্রের লাঠিচার্জে দেয়ালে পিঠ সেঁধিয়ে যাওয়া নারীর মতো ঘুরে দাঁড়াতে শেখার পর 
সবখানেই আমাদের ঘর, 
তারপর, শুইয়ে দিও কোন আম-কাঁঠালের বনে 
ততদিন, আমায় দাফন কোরো না। 

174 times read

নারী'তে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার বিষয়বস্তু, ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও মন্তব্যসমুহ সম্পূর্ণ লেখকের নিজস্ব। প্রকাশিত সকল লেখার বিষয়বস্তু ও মতামত নারী'র সম্পাদকীয় নীতির সাথে সম্পুর্নভাবে মিলে যাবে এমন নয়। লেখকের কোনো লেখার বিষয়বস্তু বা বক্তব্যের যথার্থতার আইনগত বা অন্যকোনো দায় নারী কর্তৃপক্ষ বহন করতে বাধ্য নয়। নারীতে প্রকাশিত কোনো লেখা বিনা অনুমতিতে অন্য কোথাও প্রকাশ কপিরাইট আইনের লংঘন বলে গণ্য হবে।